সময় থাকতে বুজে নিন আপনার Payoneer MasterCard-টি সাথে $25 ফ্রি

আজকে আমি দেখাবো কিভাবে খুব সহজেই পেতে পারেন Payoneer MasterCard।


যারা Online-এ আয় করেন বা ফ্রিল্যান্সিং করেন তারা সকলেই জানে Payment পাওয়ার জন্য কত কষ্ট করতে হয় বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সার দের। তবে যাদের আছে Payoneer-এর একাউন্ট এবং MasterCard, তাদের Online থেকে Payment রিসিভ করতে কোন ঝামেলায় পড়তে হয় না। কেননা এই MasterCard বেশির ভাগ Marketplace-ই পেমেন্ট গেটওয়ে হিসেবে সাপোর্ট করে পাশাপাশি এই Card দিয়ে আপনি বিশ্বের যে কোন ATM BOOTH থেকে টাকা তুলতে পারবেন।

তবে বাংলাদেশ থেকে যে পরিমাণে Spam Account খোলা হচ্ছে (শুধু পকেটে রাখার জন্য) তাতে দেখা যাবে Paypal-এর মত Payoneer ও বাংলাদেশ কে না বলে দিয়েছে। মানে বাংলাদেশ থেকে আর একাউন্ট খোলা যাবে না। 

তাই সময় থাকতে আপনি ও বুজে নিন আপনার সোনার হরিণ টি মানে MasterCard টি।
আর হ্যা এটি সম্পুর্ন ফ্রি।

তাহলে আসুন প্রথমে দেখে নেওয়া যাক Payoneer-এ একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয়।

Payoneer-এর ১টি বড় সুবিধা হল আপনি যদি কারো রেফার এ একাউন্ট খুলেন তাহলে আপনি যখন $100 লোড দিবেন তখন আপনি $২৫ ফ্রি পাবেন। এবং যার রেফার থেকে খুলছেন সে পাবে $২৫। সুতরাং উভয়েরই লাভ। আরেকটি সুবিধা হল কারো রেফার থেকে একাউণ্ট করলে Card টি হাতে পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি এবং খুব তাড়াতাড়ি। আর আপনি যদি এই লিঙ্ক থেকে একাউন্ট করেন তাহলে আপনি ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্য কার্ড হাতে পেয়ে যাবেন।

এই লিঙ্কে ক্লিক করুন তাহলে নিচের মত Sign Up ফর্ম টি আসবে। 

payoneer sign up

এখানে First Name, Last Name, Date of Birth-এ আপনার National ID Card/Driving License/Passport-এর Info দিবেন। আপনার যদি এই সব ডকুমেন্ট না থাকে তাহলে আপনার বাবা/ভাই/চাচা দের ডকুমেন্ট গুলা ব্যাবহার করতে পারেন। ১টি Fress Email Address দিবেন যেখানে আপনাকে কিছু Mail পাঠানো হবে।

না বুঝলে নিচের ছবি টি দেখুন

sign up form


Personal Details  Fill-up হলে Next বাটনে ক্লিক করে  Contact Details-এ আসুন এবং যেভাবে দেখান হয়েছে সেভাবে Fill Up করুন


এখানে ১টা কথা বলে রাখি।বেশির ভাগই Street Address নিয়ে ঝামেলায় পড়ে। তবে আমি যে Format-এ Address টি Fill করেছি আপ্নারাও ঠিক সেভাবে Fill করবেন। মানে house nmbr,road nmbr, building nmbr ইত্যাদি।আর, আপনি যে Post Office-এর Postal Code টি দিবেন সেই Post Office -এ আপনার কার্ড টি পাঠানো হবে। 

এবার Next বাটনে ক্লিক করে Security Details-এ আসুন


এরপর Next বাটনে ক্লিক করে Last Step টি Fill Up করুন



আপনার যে ডকুমেন্ট টি আছে সেটি Select করুন এবং ডকুমেন্টর Info দিন।
এখানে ১টি Option আছে যার মাধ্যমে আপনি অন্য কোন Address দিয়ে সেখান থেকে Card টি রিসিভ করতে পারবেন। যদি আপনার এটি দরকার হয় তাহলে Fill Up করুন এবং I agree করে Order -এ ক্লিক করুন।

এবার আপনি আপনার যে Email Address টি দিয়েছিলেন সেটি চেক করুন, দেখবেন নিচের মত ১টি Mail এসেছে। 




আপনি এখন ২য় স্টেপে আছেন। এই স্টেপে আপনার Application টি Verify করা হবে।



পরবর্তি mail-এ আপনার NID/PASSPORT/DRIVER'S LICENSE-এর Scan কপি Upload করতে হবে। যদি সবকিছু ঠীক থাকে তাহলে আপনার একাউন্ট টি Approve হয়ে যাবে।

এখন আপনার একাউন্ট টি সম্পুর্ন তৈরি। আপনাকে আরও ১টা mail পাঠানো হবে যার মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে কখন আপনি MasterCard টি পাবেন।

Card টি আসতে ১মাস সময় নেয়। তবে আপনি যদি আমার রেফারে Account খুলেন তাহলে ৮-১০ দিনের মধ্যই আপনি কার্ড পেয়ে যাবেন।আর হ্যা,Address সঠিক হলেও বেশির ভাগ সময় ই Card সরাসরি বাসায় আসে না। তাই ভালো হয় আপনি যদি ডাকপিয়নের সাথে যোগাযোগ রাখেন। তাকে বলবেন UK থেকে আপনার ১টি Document আসবে, তাহলেই হবে।

অনেক বড় হয়ে গেল পোস্ট টা। তারপরও যদি কেও কিছু না বুজেন তাহলে কমেন্টে জানাবেন।
**পরবর্তি পোস্টে দেখাবো কিভাবে MasterCard টিকে Active করতে হয়।**
Share this article :

+ মন্তব্য(গুলি) + 1 মন্তব্য(গুলি)

১৭ নভেম্বর, ২০১৫ ১০:৪১ AM

Valo Outsourcing, Computer and Mobile Tips-Banglarprojukti.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
Copyright © 2015. টেকিব্লগ - All Rights Reserved
Template Created by রিয়াদ ফারভি